4raBet-এ আইপিএল বেটিং 2022: উচ্চ সম্ভাবনা এবং বাজির বিস্তৃত পরিসর

আইপিএল হল বাংলাদেশে ক্রীড়া ইভেন্টগুলির মধ্যে একটি সর্বাধিক অনুসরণীয়। এটা সত্য যে বাংলাদেশের জনগণ ক্রিকেটকে ভালোবাসে এবং দেশের বড় বড় শহর জুড়ে ফিচার টিম।

বার্ষিক আইপিএল বিশ্বব্যাপী গড় মজুরিতে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে – $5.06 মিলিয়ন। দর্শকদের ব্যাপারে, আইপিএলকে ৫ম রেট দেওয়া হয়েছে – প্রতিটি খেলায় গড়ে ৩০,০০০ আইপিএল ফলোয়ার পাওয়া যাচ্ছে। মজার ব্যাপার হল, আইপিএল প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল মাত্র দশ বছর আগে, ২০০৮ সালে।

4raBet এআইপিএল ২০২২-এবাজিধরাএবং বিজয়ী হওয়ার জন্য চমৎকার সম্ভাবনা রয়েছে। আইপিএল বেটিং এর সমস্ত বিবরণের জন্য পড়তে থাকুন এবং অবগত থাকুন।

4Rabet ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজে আইপিএল বেটিং

আইপিএল কী?

আইপিএলতথ্য
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৮
ফ্রাঞ্চাইজিসমূহ
  • চেন্নাই সুপার কিংস;
  • দিল্লি ক্যাপিটালস;কলকাতা নাইট রাইডার্স;
  • মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স;
  • পাঞ্জাব কিংস;
  • রাজস্থান রয়্যালস;
  • রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর;
  • সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ;
  • লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস;
  • টিম আহমেদাবাদ।M
অফিশিয়াল টুর্নামেন্ট সাইটiplt20.com
প্রধান স্পন্সরটাটা গ্রুপ
ইভেন্ট শুরুর তারিখএপ্রিল ২ ২০২২ থেকে জুন ৩ ২০২২
মালিকBCCI ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড
দেশভারত

আইপিএল মানে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ – একটি বিশিষ্ট টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট ক্রিকেট-কেন্দ্রিক লিগ যা প্রতি বছর বসন্ত মাসে অনুষ্ঠিত হয়। টি২০ দৃশ্যের বৃদ্ধির সাথে সাথে, আইপিএল ২০০৮ সালে তারকা খচিত প্রথম সিজন দিয়ে বিশ্বকে ঝড় তুলেছিল। লিগ সারা বিশ্ব থেকে এই খেলার শীর্ষ তারকাদের একত্রিত করে, এটিকে একটি ক্যালেন্ডার বছরে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বৈশ্বিক ক্রিকেট ইভেন্টগুলির মধ্যে একটি করে তোলে।

সামগ্রিকভাবে, আমরা চৌদ্দটি সফল আইপিএল মৌসুম গণনা করতে পারি। বর্তমান আইপিএল শিরোপাধারী হল চেন্নাই সুপার কিংস, ২০২১ সালের চ্যাম্পিয়ন। ২০২১ সাল পর্যন্ত, প্রতি বছর লিগে ৮টি দল ছিল; যাইহোক, পরের মৌসুমটি হবে অনেক বড় এবং ভালো, দুটি নতুন দল নিয়ে আসবে: লখনউ সুপার জায়ান্টস এবং টিম আহমেদাবাদ ।

লিগ মানসম্পন্ন এবং দর্শনীয় ক্রিকেট প্রদান করে এবং সকল স্টেকহোল্ডারদের জন্য বিলিয়ন ডলার আয় করে। ২০১৮-২০২২ চুক্তির ভিত্তিতে যা সর্বজনীন শীর্ষ দশে রয়েছে, আইপিএল-এর মালিকানাধীন মিডিয়া অধিকারগুলির মূল্য $২.৬ বিলিয়ন। শুধুমাত্র একটি সিজনের ক্ষেত্রে, এটি $৫১০ মিলিয়ন মূল্যের NHL চুক্তিকে ছাড়িয়ে গেছে এবং ২০২৪ সাল পর্যন্ত বৈধ।বিসিসিআই অর্থনৈতিক নীতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে, আইপিএল বেটিং, ম্যাচ টিভি এবং স্ট্রিমিং পরিষেবাগুলি ভারতের জিডিপিতে ব্যাপক লাভ এনেছে। ২০২১ সালে, যদিও দলগুলি খালি স্টেডিয়ামে খেলে, আইপিএল বিসিসিআই এবং সরকারের জন্য প্রায় $১.৭ বিলিয়ন লাভ এনেছিল।

4rabet-এ আইপিএল বেটিং সম্পর্কে - ছবিতে দলগুলি

আইপিএল সময়সূচী – ম্যাচের তারিখ ও সময়

আমরা আপনার জন্য তারিখ সহ ম্যাচের আনুমানিক সময়সূচী প্রস্তুত করেছি।

বিঃদ্রঃ:

বিসিসিআই এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে আইপিএল ২০২২ সূচি প্রকাশ করেনি।
নংম্যাচতারিখসময়অবস্থান
সিএসকে বনাম কেকেআর০২-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই
এসআরএইচ বনাম আরআর০৩-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০হায়দ্রাবাদ
আহমেদাবাদ বনাম আরসিবি০৪-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০আহমেদাবাদ
ডিসি বনাম এমআই০৫-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
লখনউ বনাম পিবিকেএস06-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
কেকেআর বনাম এসআরএইচ০৭-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
আরআর বনাম ডিসি০৮-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
আরসিবি বনাম এমআই০৯-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০ব্যাঙ্গালোর
লখনউ বনাম আহমেদাবাদ০৯-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
১০পিবিকেএস বনাম সিএসকে১০-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০মোহালি
১১এসআরএইচ বনাম আরসিবি১০-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০হায়দ্রাবাদ
১২এমআই বনাম আহমেদাবাদ১১-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
১৩ডিসি বনাম কেকেআর১২-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
১৪সিএসকে বনাম আরসিবি১৩-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই
১৫SRH বনাম PBKS১৪-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০হায়দ্রাবাদ
১৬আরআর বনাম কেকেআর১৪-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
১৭লখনউ বনাম ডিসি১৫-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
১৮আহমেদাবাদ বনাম সিএসকে১৬-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০আহমেদাবাদ
১৯ডিসি বনাম এসআরএইচ১৬-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
২০আরসিবি বনাম আরআর১৭-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০ব্যাঙ্গালোর
২১এমআই বনাম লখনউ১৭-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
২২কেকেআর বনাম আহমেদাবাদ১৭-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
২৩পিবিকেএস বনাম আরআর১৯-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মোহালি
২৪এমআই বনাম সিএসকে২০-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
২৫কেকেআর বনাম আরসিবি২১-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
২৬ডিসি বনাম পিবিকেএস২২-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
২৭এসআরএইচ বনাম এমআই২৩-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০হায়দ্রাবাদ
২৮আরআর বনাম আহমেদাবাদ২৩-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
২৯সিএসকে বনাম লখনউ২৪-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০চেন্নাই
৩০ডিসি বনাম আরসিবি২৪-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
৩১লখনউ বনাম সিএসকে২৫-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৩২আহমেদাবাদ বনাম এসআরএইচ২৬-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০আহমেদাবাদ
৩৩কেকেআর বনাম পিবিকেএস২৭-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৩৪আরআর বনাম এমআই২৮-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
৩৫আরসিবি বনাম লখনউ২৯-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ব্যাঙ্গালোর
৩৬আহমেদাবাদ বনাম ডিসি৩০-এপ্রিল-২০২২বিকাল ৩:৩০আহমেদাবাদ
৩৭MI বনাম PBKS৩০-এপ্রিল-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৩৮আরআর বনাম লখনউ০১-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
৩৯সিএসকে বনাম এসআরএইচ০১-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই
৪০ডিসি বনাম আহমেদাবাদ০২-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
৪১এসআরএইচ বনাম কেকেআর০৩-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০হায়দ্রাবাদ
৪২সিএসকে বনাম আরআর০৪-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই
৪৩লখনউ বনাম এমআই০৫-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৪৪আহমেদাবাদ বনাম কেকেআর০৬-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০আহমেদাবাদ
৪৫এসআরএইচ বনাম ডিসি০৭-মে-২০২২বিকাল ৩:৩০হায়দ্রাবাদ
৪৬আরসিবি বনাম পিবিকেএস০৭-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ব্যাঙ্গালোর
৪৭কেকেআর বনাম সিএসকে০৮-মে-২০২২বিকাল ৩:৩০কলকাতা
৪৮এমআই বনাম ডিসি০৮-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৪৯আরসিবি বনাম আহমেদাবাদ০৯-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ব্যাঙ্গালোর
৫০পিবিকেএস বনাম লখনউ১০-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মোহালি
৫১আরআর বনাম সিএসকে১১-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
৫২পিবিকেএস বনাম এমআই১২-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মোহালি
৫৩এসআরএইচ বনাম লখনউ১৩-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০হায়দ্রাবাদ
৫৪আরআর বনাম আরসিবি১৪-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০জয়পুর
৫৫সিএসকে বনাম ডিসি১৫-মে-২০২২বিকাল ৩:৩০চেন্নাই
৫৬আহমেদাবাদ বনাম পিবিকেএস১৫-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০আহমেদাবাদ
৫৭এমআই বনাম এসআরএইচ১৬-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৫৮আরসিবি বনাম কেকেআর১৭-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ব্যাঙ্গালোর
৫৯পিবিকেএস বনাম ডিসি১৮-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৬০আহমেদাবাদ বনাম আরআর১৯-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ইন্দোর
৬১কেকেআর বনাম এমআই২০-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৬২লখনউ বনাম এসআরএইচ২১-মে-২০২২বিকাল ৩:৩০লক্ষ্ণৌ
৬৩পিবিকেএস বনাম আরসিবি২১-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৬৪সিএসকে বনাম আহমেদাবাদ২২-মে-২০২২বিকাল ৩:৩০চেন্নাই
৬৫লখনউ বনাম কেকেআর২২-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০লক্ষ্ণৌ
৬৬এমআই বনাম আরআর২৩-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৬৭পিবিকেএস বনাম এসআরএইচ২৪-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৬৮ডিসি বনাম লখনউ২৫-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০দিল্লী
৬৯আরসিবি বনাম সিএসকে২৬-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০ব্যাঙ্গালোর
৭০কেকেআর বনাম আরআর২৭-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০কলকাতা
৭১কোয়ালিফায়ার-১২৯-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৭২নির্মূলকারী৩০-মে-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০মুম্বাই
৭৩কোয়ালিফায়ার-2০১-জুন-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই
৭৪ফাইনাল০৩-জুন-২০২২সন্ধ্যা ৭:৩০চেন্নাই

আইপিএল বেটিং ভিডিও পর্যালোচনা

সর্বশেষ তথ্য পেতে আমরা আমাদের আইপিএল বেটিং ভিডিও পর্যালোচনা দেখার পরামর্শ দিই। আমরা আপনার প্রথম 4raBet আইপিএল বাজি রাখার প্রক্রিয়াটি ভেঙে দেব, তারপরে উপলব্ধ বাজারের বিশদ ব্যাখ্যা, প্রতিকূলতা পরিবর্তন, শীর্ষ দল, শীর্ষ খেলোয়াড় এবং আরও অনেক কিছু।

আইপিএল বেটিং ভিডিও প্রিভিউ

4raBet-এ আইপিএল বাজি ধরার সুবিধা

4rabet হল ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত একজন তরুণ বুকমেকার, এবং তবুও আমরা একাধিক স্বাধীন পর্যালোচকদের দ্বারা বাংলাদেশের সেরা অনলাইন বেটিং আইপিএল প্ল্যাটফর্ম হিসাবে বিবেচিত। আমাদের স্বজ্ঞাত ওয়েবসাইট এবং বাস্তবভিত্তিক অনলাইন পরিসংখ্যান সহ, আমরা আমাদের গ্রাহকদের কাছে একটি সূক্ষ্ম আইপিএল বেটিং পরিষেবা সরবরাহ করতে সক্ষম।

আমরা একটি তাৎক্ষণিক স্কোরকার্ড অফার করি যা আপনাকে ম্যাচের রিয়েল-টাইম পরিস্থিতির সাথে আপডেট রাখে। এছাড়াও, আমাদের সুবিধাজনক স্পোর্টসবুক আপনাকে প্রদান করে :

  • প্রতিটি খেলার গভীর বিশ্লেষণ,
  • সময় এবং তারিখ অনুসারে ইভেন্টের দরকারী বাছাই,
  • আবহাওয়া, পিচ এবং খেলার অবস্থা সম্পর্কে তথ্য,
  • দলগুলির গ্রাফিকাল H2H তুলনা (সংখ্যা ভাঙ্গার জন্য চার্ট, দলের পারফরম্যান্স, খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স)। 

আইপিএল বেটিং সুবিধা

আমাদের বুকমেকার প্ল্যাটফর্মে উপলব্ধ আইপিএল বাজি বাজারের তালিকাটি বরং দুর্দান্ত। আপনি ম্যাচ বিজয়ী থেকে শুরু করে অস্বাভাবিক আইপিএল বাজি যেমন টস বিজয়ী বা পরবর্তী/সবচেয়ে বেশি উইকেট সবকিছু খুঁজে পেতে পারেন। একক ম্যাচের জন্য আইপিএল বেটিং সম্ভাবনার ব্যবধান প্রায় ৫% ওঠানামা করে আউটরাইট বিজয়ীদের জন্য, প্রধান প্রতিবন্ধকতার উপর বাজি, এবং মোট। অতিরিক্ত জনপ্রিয় বাজারে মার্জিন প্রায় ৬-৭%, যেমন:

  • ব্যক্তিগত দল মোট,
  • উভয় দলের স্কোর,
  • মোট কার্ড,
  • ধরা,
  • উইকেট, ইত্যাদি

আমরা সম্পূর্ণরূপে কার্যকরী মোবাইল ওয়েবসাইটের পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড এবং iOS-এর জন্য আধুনিক মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলির মাধ্যমে আমাদের সমস্ত পরিষেবা অফার করি৷ আমাদের সহায়তা পরিষেবার সাথে ইমেল, ফোন এবং চব্বিশ ঘন্টা লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে যোগাযোগ করা যেতে পারে।

4raBet-এ আইপিএল বেটিং সুবিধা

কিভাবে 4raBet এ আইপিএলে বাজি ধরবেন?

আমাদের প্ল্যাটফর্মে শুরু করা যতটা সহজ ততটাই সহজ৷ যাইহোক, একজন শিক্ষানবিশ হিসাবে, আপনার আইপিএল বেটিং সম্পর্কে কিছু জিনিস জানা উচিত। আপনার প্রথম 4rabet IPL বাজি করতে প্ল্যাটফর্মে নিজেকে নিবন্ধিত করা বাধ্যতামূলক৷ নিবন্ধন করার দুটি উপায় রয়েছে : ইমেল এবং ফোন। আপনার বাজি ধরার যাত্রায় দ্রুত এগিয়ে যাওয়ার জন্য এখানে উভয় পদ্ধতির একটি ধাপে ধাপে ব্রেকডাউন রয়েছে:

ফোন নম্বরের মাধ্যমে যোগদান করুন

  1. অফিসিয়াল 4rabet বুকমেকার যান.
  2. ‘রেজিস্ট্রেশন’ বোতামে ট্যাপ করে শুরু করুন এবং তারপর ফোন বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
  3. আপনার ফোন নম্বর এবং একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড লিখুন।
  4. ড্রপ-ডাউন মেনু থেকে আপনার কাঙ্খিত মুদ্রা (বাংলাদেশের জন্য BDT) চয়ন করুন এবং ” EXTRABONUS ” প্রচার কোড লিখুন৷
  5. অবশেষে, শর্তাবলী বাক্সে টিক চিহ্ন দিন এবং “সাইন আপ” বোতামে ক্লিক করুন।
  6. রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে আপনি পাঠ্য বার্তার মাধ্যমে একটি সুরক্ষিত কোড বা নিবন্ধন লিঙ্ক পাবেন।

4raBet-এ ফোন রেজিস্ট্রেশন ফর্ম

ইমেলের মাধ্যমে যোগ দিন

ইমেলের মাধ্যমে নিবন্ধিত হওয়ার প্রক্রিয়াটি ফোনের মাধ্যমে একই রকম। এখানে শুধুমাত্র পার্থক্য হল আপনি একটি মোবাইল ফোন নম্বরের পরিবর্তে আপনার বৈধ ইমেল ঠিকানা লিখতে হবে৷ একবার আপনি প্রয়োজনীয় তথ্য যোগ করলে, আপনাকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্পোর্টসবুকে রিডাইরেক্ট করা হবে এবং আপনি আইপিএল বেটিং শুরু করতে পারবেন।

4rabet-এ রেজিস্ট্রেশন ফর্ম - IPL-এ বাজি ধরার জন্য ই-মেইলের মাধ্যমে যোগ দিন

আইপিএলে আপনার বাজি রাখা

একবার আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট সক্রিয় করলে, আপনার প্রথম 4rabet IPL বাজি করার জন্য আপনাকে এই পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে হবে।

  1. একটি ডিপোজিট করুন : আমরা IPL বেটিং এর জন্য বহুবিধ ডিপোজিট বিকল্প অফার করি এবং বাংলাদেশি টাকা ব্যবহার করার অনুমতি দিই। আপনার প্রথম ডিপোজিট করতে, প্রধান মেনু থেকে ক্যাশিয়ার বিভাগে যান, “আমানত” এ ক্লিক করুন, পছন্দসই আমানত পদ্ধতি বেছে নিন এবং পরবর্তী পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন৷
  2. একটি বাজি রাখুন: আইপিএল বেটিং প্রক্রিয়ার চূড়ান্ত ধাপটি হবে আইপিএল ইভেন্টে যাওয়া এবং পছন্দের ম্যাচ বাছাই করা, একটি বাজার নির্বাচন করা, আপনার মতভেদ বাছাই করা, বাজি স্লিপে আপনি যে পরিমাণ বাজি ধরতে চান তা লিখুন এবং অবশেষে, আপনার প্রথম বাজি

আমরা বাজির জন্য বিস্তৃত তালিকার সাথে আইপিএল বাজির জন্য অনুকূল প্রতিকূলতা প্রদান করি। তাছাড়া, আমাদের প্ল্যাটফর্ম নতুন খেলোয়াড়দের স্পোর্টস বিভাগের জন্য একটি মনোরম 130% বোনাস দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় । আপনি ২৬,০০০৳ পর্যন্ত প্রথম জমার জন্য ‘ EXTRABONUS ‘ প্রমো কোড ব্যবহার করে এটি দাবি করতে পারেন ৷

4rabet ফর্ম দিয়ে আইপিএলে বাজি তৈরি করুন

আইপিএল সত্তা বাজার: সেরা প্রপ বাজি কি?

সময়ের সাথে সাথে, আইপিএল বেটিং বাজার অনলাইনে বিকশিত হয়েছে, এবং স্ট্যান্ডার্ড বেট ছাড়াও, এখন 4rabet-এ আরও অনেকগুলি পাওয়া যাচ্ছে। এখানে আমাদের কয়েকটি শীর্ষ আইপিএল বেটিং বিকল্প রয়েছে:

  • ম্যাচ বিজয়ী: ম্যাচ বিজয়ী হল সবচেয়ে সাধারণ বিকল্প যা আপনি আমাদের বুকমেকার সাইটে পাবেন। নাম অনুসারে, এই বাজিগুলি সেই দলগুলির উপর স্থাপন করা হয় যেগুলি আপনি মনে করেন ম্যাচ জিতবে এবং সাধারণত প্রাক-ম্যাচ বেটিং আইপিএল লাইনের অধীনে পড়ে, তবে আপনি লাইভ মোডেও বাজি ধরতে পারেন৷
  • ম্যাচ হ্যান্ডিক্যাপ: ম্যাচ হ্যান্ডিক্যাপ হল দল বা খেলোয়াড়দের মধ্যে একটি শর্তসাপেক্ষ সুবিধা বা অসুবিধা সহ জয়ের উপর একটি বাজি। প্রতিবন্ধকতা ইতিবাচক বা নেতিবাচক হতে পারে। একটি ইতিবাচক প্রতিবন্ধকতা স্কোর বা উইকেট যোগ করে, যখন একটি নেতিবাচক প্রতিবন্ধকতা তাদের বিয়োগ করে। একটি শূন্য প্রতিবন্ধকতাও রয়েছে, যা উভয় দলকে সুবিধা দেয় না। উদাহরণস্বরূপ, দিল্লি ডেয়ারডেভিলস এবং চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যে একটি ম্যাচ কল্পনা করুন। ধরুন আপনি চেন্নাই সুপার কিংসে +২০-এর প্রতিবন্ধকতা সহ জয়ের জন্য একটি বাজি রেখেছেন। এই বাজি ব্যর্থ হওয়ার জন্য, ডেয়ারডেভিলসকে ২০রানের বেশি জিততে হবে। অন্যথায়, আপনার বাজি সফল হবে যদিও ডেয়ারডেভিলস ১৯ রানে জিতলেও, প্রতিবন্ধকতাকে বিবেচনায় নিয়ে।
  • কয়েন টসের বিজয়ী: এটি আইপিএল বাজি ধরার আরেকটি সহজ ধরন কারণ টস জেতার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি দলে বাজি ধরা হয়।
  • শীর্ষ ব্যাটসম্যান: এখানে, সেই ব্যাটসম্যানের উপর বাজি তৈরি করা হয় যাকে আপনি মনে করেন ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান করবে।
  • শীর্ষ বোলার: এখানে, আপনি সেই বোলারের উপর আপনার দাবী রাখেন যে ম্যাচ বা পুরো আইপিএল মৌসুমে আপনি সবচেয়ে বেশি উইকেট নেবেন বলে মনে করেন।
  • মোট উইকেট: এই ধরনের অধীনে, আপনি প্রথম/দ্বিতীয় বা উভয় ইনিংসে কত উইকেট পড়বে বলে মনে করেন তার উপর বাজি তৈরি করা হয়।
  • প্লেয়ার পারফরম্যান্স: এই ধরনের বাজি আপনাকে একটি নির্দিষ্ট খেলোয়াড়ের পারফরম্যান্সের উপর বাজি ধরতে দেয়। উদাহরণস্বরূপ, বিরাট কোহলি হাফ সেঞ্চুরি করতে পারবে কি না তা নিয়ে আপনি বাজি ধরতে পারেন।
  • সর্বোচ্চ ওপেনিং পার্টনারশিপ: নাম থেকেই বোঝা যাচ্ছে, আপনি উভয় দলের মধ্যে একটি বেছে নেবেন যেটি ওপেনিং পার্টনারশিপে বেশি রান করবে।
  • ১ম ওভারে মোট রান: এক ধরনের ওভার বা নিচের বাজি যেখানে আপনি ইনিংসের প্রথম ওভারে কত রান হবে তার উপর বাজি রাখতে পারবেন।
  • মোট চার/ছক্কা: এটি একটি অস্বাভাবিক ধরনের বাজি যেখানে আপনি একটি ম্যাচ চলাকালীন চার বা ছক্কার সংখ্যা অনুমান করতে সক্ষম হবেন।
  • ম্যান অফ দ্য ম্যাচ: এখানে, আপনি এমন একজন খেলোয়াড়ের উপর বাজি ধরবেন যাকে আপনি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হিসাবে মুকুট দেওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি মনে করেন।

সেরা প্রপ বেটের তালিকা

4raBet আইপিএল বাজি: সেরা বিশ্লেষণ

আমাদের প্ল্যাটফর্ম বিভিন্ন ধরনের বাজি কভার করে। যেহেতু এটি একটি মর্যাদাপূর্ণ টুর্নামেন্ট, তাই বুকমেকাররা আপনাকে অস্বাভাবিক বাজি প্রদান করতে পারে। সুবিধাজনক মেনু শুধুমাত্র সরাসরি বিজয়ী এবং প্রতিবন্ধীদের মতো স্ট্যান্ডার্ড লাইনই প্রদর্শন করে না বরং কয়েকটি আইপিএল বেটিং স্পেশালেও।

এখানে 4rabet-এ উপলব্ধ IPL বেটিং প্রকারগুলির একটি বিশদ ওভারভিউ রয়েছে৷

  • একক: পেশাদার বাজিকররা আইপিএল বাজি রাখার সময় এটিকে প্রাথমিক বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করে। ধরণটি একটি একক ম্যাচ থেকে একটি ফলাফলের উপর একটি বাজি বোঝায়। একক বাজি ভালো মতভেদ এবং সহজ নাগালের কারণে দূরত্বে অন্যান্য ধরনের বাজিকে ছাড়িয়ে যায়।
  • ডাবল চান্স: বাজি করার সময় বাজি ঝুঁকি কমায়। যদি বাজিকররা দ্বিগুণ সম্ভাবনার উপর ফোকাস করে, তারা উল্লেখযোগ্যভাবে পাসের শতাংশ বৃদ্ধি করে। বাজির বিপরীতে, প্রাথমিক ফলাফলের বাজারে, দ্বিগুণ সুযোগ দুটি সম্ভাব্য পরিস্থিতি কভার করে।
  • পুঞ্জীভূত: এই স্পোর্টসবুকটি আপনাকে বিভিন্ন ম্যাচ বা মার্কেটে এক সাথে বাজি ধরতে দেয় যাতে আপনি প্রতিকূলতা বাড়াতে পারেন। এটি করার জন্য, IPL বাজি ধরার সময় আপনাকে দুই বা তার বেশি ফলাফল বেছে নিতে হবে। চূড়ান্ত প্রতিকূলতা এবং সঞ্চিত জয়গুলি সহ সমস্ত তথ্য ডানদিকে বাজি স্লিপে প্রদর্শিত হবে।
  • মোট: প্রতিটি আইপিএল ম্যাচের ফলাফলের জন্য খেলা হয়, রান করা, উইকেট নেওয়া, চার, ছক্কা, ক্যাচ ইত্যাদির আকারে প্রকাশ করা হয়। এবং টোটাল বেটিং লাইন আপনাকে এই পরিসংখ্যানগুলির যেকোনো একটিতে বাজি ধরতে দেয়। বেটর যারা দল বা খেলোয়াড়দের পৃথক পরিসংখ্যান অধ্যয়ন করতে পছন্দ করে তারা মোট পছন্দ করে।
  • সিস্টেম: বেশ কয়েকটি সঞ্চয়কারী বাজির সমন্বয়কে জটিল মাল্টি-বেট বা সিস্টেম বেট বলা হয়। বাজিটি অ্যাকিউমুলেটরদের থেকে ভাল দেখায় কারণ এটি বাজি স্লিপে ফলাফলের যোগ্য বিতরণের কারণে কম ঝুঁকি বহন করে।
  • লাইভ: অনেক খেলোয়াড় তাদের ভাগ্য চেষ্টা করতে এবং একটি চলমান ম্যাচে বাজি ধরতে পছন্দ করে এবং প্রতিটি আইপিএল ম্যাচ বাজিকারীদের প্রচুর লাইভ বাজির সুযোগ প্রদান করে। 4rabet এই লাইভ বেটিং লাইনটিকে বরং ব্যাপকভাবে কভার করে কারণ প্রতিটি ম্যাচের জন্য প্রচুর বিভিন্ন বিকল্প রয়েছে। এর মধ্যে পরের উইকেট, পরের এলবিডব্লিউ, পরের ক্যাচ, পরের বলের স্কোর এবং আরও অনেক কিছুর মতো বাজি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

4raBet এর সাথে IPL-এর জন্য সেরা বাজি বিশ্লেষণ করা হচ্ছে

আইপিএল ২০২২থেকে আমরা কী আশা করব?

আইপিএল ২০২২এর জন্য হাইপ ২০২২ মৌসুম শেষ হওয়ার আগেই বাড়তে শুরু করেছে। এর প্রধান কারণ ছিল বিসিসিআই-এর দুটি নতুন দল অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা এবং তার পরে একটি একেবারে নতুন নিয়মের সাথে একটি মেগা নিলাম। প্রতিটি দল মাত্র চারজন খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে পারবে, তাই তারকা খেলোয়াড়দের নিলামের জন্য মাঠে নামানো হবে।

এটি নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলিকে তাদের স্বপ্নের দলগুলি তৈরি করার সুযোগ দেবে যখন পুরানো দলগুলি তাদের কৌশলগুলি পুনর্বিবেচনা করতে পারে। বাজি ধরার জন্য, আইপিএল ২০২২ আরও ম্যাচ এবং আইপিএল বেটিং থেকে আশ্চর্যজনক লাভ করার আরও সুযোগ নিয়ে আসবে।

ঘটনা থেকে আমরা কি আশা করি

আইপিএল দল ২০২২

আইপিএল ২০২২ আগের চেয়ে অনেক বড় এবং ভালো হওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে, যা আইপিএল বেটিংকে সর্বকালের উচ্চতায় নিয়ে যাবে। ১৫ তম সংস্করণ দুটি নতুন দল, আহমেদাবাদ এবং লখনউকে স্বাগত জানাবে, যারা এখনও তাদের প্লেয়ার ড্রাফ্ট জমা দিতে পারেনি। পূর্ববর্তী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি চারজন খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছিল, প্রতিটি আসন্ন নিলামকে দেখার মতো করে তোলে। প্রতিটি দলের জন্য বিশদ, তাই, এখনও আসা বাকি, কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত যা জানি তা এখানে:

আইপিএল দল 2022

চেন্নাই সুপার কিংস

চেন্নাই সুপার কিংস

চেন্নাই সুপার কিংস (CSK) তাদের বেল্টের অধীনে ৪টি শিরোপা সহ আইপিএলের সেরা দল হিসাবে বিবেচিত হতে পারে, ২০১০, ২০১১, ২০১৮ এবং অতি সম্প্রতি ২০২১ সালে। এছাড়াও, হলুদ পুরুষরাও দুটি চ্যাম্পিয়ন জিততে সক্ষম হয়েছে। ২০১০ এবং ২০১৪ সালে দুইবার লিগ টি-টোয়েন্টি শিরোপা।
কিংবদন্তি অধিনায়ক কুল, এমএস ধোনি, ফ্র্যাঞ্চাইজির পোস্টার বয় হিসাবে অবিরত আছেন, রবীন্দ্র জাদেজা, রবীন্দ্র জাদেজা এবং ডোয়াইন ব্রাভো একটি সু-ভারসাম্যপূর্ণ লাইনআপের জন্ম দিয়েছেন। ২০২১ সালে জয় আবার হলুদ ঝড়কে হট সিটে রেখেছে, এবং তারা তাদের শিরোপা রক্ষা করার সময় আইপিএল বাজি ধরার জন্য দেখার যোগ্য এবং উপযুক্ত হবে।

দিল্লি ক্যাপিটালস

দিল্লি ক্যাপিটালস

ক্যাপিটালস, যা আগে ডেয়ারডেভিলস নামে পরিচিত ছিল, লিগের প্রথম দুই বছরে ভালো শুরু করেছিল, কিন্তু পরবর্তীতে তারা ২০১১, ১০১২, ২০১৩, ২০১৪এবং ২০১৮সালে শেষবার শেষ হওয়ার কারণে তারা প্লট হারিয়েছে বলে মনে হয়েছিল। ডিসেম্বর ২০১৮ সালে, ফ্র্যাঞ্চাইজির নাম পরিবর্তন করা হয়েছিল দিল্লির রাজধানীতে।
২০২১ সালে প্লে অফে জায়গা করে নেওয়ার সময় তারা প্রথমবার ২০১৯ সালে ফাইনালে পৌঁছেছিল বলে দলের ভাগ্যও বদলেছে বলে মনে হচ্ছে। তারা পরবর্তী আইপিএল বেটিং সিজনে তরুণ কিন্তু স্থিতিশীল চেহারার ঋষভ প্যান্টের নেতৃত্বে প্রবেশ করবে।

পাঞ্জাব কিংস

পাঞ্জাব কিংস

পূর্বে কিংস X1 পাঞ্জাব নামে পরিচিত, পাঞ্জাব কিংস ২০০৮ সালে একটি প্রতিশ্রুতিশীল শুরু করেছিল কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী সাফল্য খুঁজে পায়নি, যা তাদের আইপিএল বাজির জন্য সবচেয়ে কম বেছে নেওয়া বিকল্পগুলির মধ্যে একটি করে তুলেছে। মালিকানা লঙ্ঘনের কারণে আইপিএল বোর্ড অফ গভর্নরস ফ্র্যাঞ্চাইজিটিকে বহিষ্কার করেছে। তারা পরে আদালত থেকে স্বস্তি পেয়েছিল, কিন্তু অনিশ্চয়তা ২০১৪ পর্যন্ত পাঞ্জাবের পরিকল্পনাকে প্রভাবিত করেছিল কারণ তারা একটি শক্তিশালী লাইন আপ তৈরি করতে অক্ষম ছিল।
২০১৪ সালে জিনিসগুলি কিছুটা ভাল বলে মনে হয়েছিল কারণ তারা কোচ হিসাবে সঞ্জয় বাঙ্গারের নেতৃত্বে একটি উত্তেজনাপূর্ণ দলকে একত্রিত করতে সক্ষম হয়েছিল। ফ্র্যাঞ্চাইজি ফাইনালে পৌঁছেছে, কেকেআরের বিরুদ্ধে কঠিন লড়াইয়ের ফাইনালে হেরেছে। যাইহোক, পরবর্তী কোন মৌসুমেই তারা গতি বাড়াতে পারেনি। ২০২১ একটি ব্যতিক্রম ছিল না, টানা তৃতীয় বছরের মতো, তারা ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে ৬ তম স্থান দখল করেছে। নিলামের জন্য আরও খেলোয়াড়ের সাথে, ২০২২ কিংসদের বছর হতে পারে।

কলকাতা নাইট রাইডার্স

কলকাতা নাইট রাইডারস

KKR, ওরফে কলকাতা নাইট রাইডার্স, যে তিনটি দল একাধিক আইপিএল শিরোপা জিতেছে তাদের মধ্যে একটি। এই দলটি বলিউড শাহরুখ খানের মালিকানাধীন এবং এটি আইপিএল বাজির বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয় দল। ফ্র্যাঞ্চাইজিটি ২০০৮ সালে প্রায় ২৬২.৫ মিলিয়ন রুপি বা প্রায় $75.09 মিলিয়নে কেনা হয়েছিল।
সোরাভ গাঙ্গুলীর অধীনে নাইট হর্সম্যানের প্রথম তিন বছর এবং তারপরে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম বেশ মারাত্মকভাবে কেটেছে কারণ রিকি পন্টিং, ক্রিস গেইল এবং শোয়েব আখতারের পছন্দ থাকা সত্ত্বেও তারা সেরাটি শেষ করেছিল ষষ্ঠ স্থানে। যাইহোক, 2012 সালে জিনিসগুলি পরিবর্তিত হয়েছিল, কারণ KKR একটি দুর্দান্ত রান করেছিল এবং গৌতম গম্ভীরের অধীনে শীর্ষস্থানে শেষ হয়েছিল, তারপরে ২০১৮ সালে আরও একটি শিরোপা পেয়েছিল৷ দলটি গত মৌসুমে অধিনায়ক মরগানের অধীনে দুর্দান্ত স্পর্শে দেখা গিয়েছিল এবং ফাইনালে পৌঁছতে সক্ষম হয়েছিল৷ টুর্নামেন্টের শেষভাগে আন্দ্রে রাসেলের অনুপস্থিতি সত্ত্বেও।

আইপিএল বেটিং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স

মুম্বাই ইন্ডিয়ানস

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স লিগের সবচেয়ে সফল দল, তাদের বেল্টের অধীনে ৫টি চ্যাম্পিয়নশিপ রয়েছে। এটি সবচেয়ে ব্যয়বহুল দল কারণ এটি প্রথম ২০০৮সালে $112 মিলিয়নে বিক্রি হয়েছিল।
শচীন টেন্ডুলকার, সনত জাসুরিয়া, রোহিত শারমন, জাহির খান, কাইরন পোলার্ড এবং জাসপ্রিত বুমরাহের সাথে মুম্বাইয়ের সবসময় তারকা-খচিত লাইনআপ রয়েছে। রোহিত, বুমরাহ এবং পোলার্ডকে তাদের দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য মুম্বাই একটি শক্ত ভিত্তি দিয়েছে। ২০২১-এ, রানার্স-আপ গতির সাথে পুরোপুরি ধরতে পারেনি এবং প্লে অফের জন্য যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি। যাইহোক, আইপিএল বাজির জন্য সেরা প্রতিকূলতার সাথে তারা সর্বদা শীর্ষ তিনটি হট-ফেভারিটের মধ্যে থাকে।

রাজস্থান রয়্যালস

রাজস্থান রয়্যালস

রাজস্থান রয়্যালস ২০০৮ সালে সবচেয়ে কম ব্যয়বহুল দল ছিল এবং তারা কোনোভাবে প্রথম আইপিএল শিরোপা জিততে সক্ষম হয়েছিল। যাইহোক, তারা গতি হারিয়েছে এবং খারাপ থেকে খারাপের দিকে চলে গেছে, এতে খারাপ আইপিএল বাজি ধরার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও, ফ্র্যাঞ্চাইজিটি বিগত দশক জুড়ে বিতর্কের মধ্যে রয়েছে এবং এর বাইরেও রয়েছে এবং এমনকি ২০১৩ সালে স্থগিতাদেশের সম্মুখীন হয়েছিল। একটি বাজেট-ভিত্তিক পদ্ধতির কারণে দলটি নতুন স্থানীয় প্রতিভার উপর অত্যন্ত নির্ভর করে।
তবুও, বেন স্টোকস, ক্রিস মরিস এবং শেন ওয়াটসন সহ বেশ কয়েকজন আন্তর্জাতিক তারকা তাদের সাথে যোগ দিয়েছেন। ২০২১ মৌসুমে জফ্রে আর্চার, জস বাটলার এবং স্টোকস সহ কিছু বড় নাম দলে নিয়ে আসে; যাইহোক, বেশিরভাগ টুর্নামেন্টের জন্য কোনো বড় চমক পাওয়া যায়নি। অতএব, দলটি আরও একটি খারাপ বছরের মধ্য দিয়ে গেছে এবং সপ্তম স্থানে শেষ করেছে।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর

বিরাট কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্স, রাহুল দ্রাবিড়, কেভিন পিটারসেন, ক্রিস গেইল এবং আরও অনেক সহ অনেক বড় নাম সহ একটি দুর্দান্ত লাইন আপের জন্য রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর সর্বদা হট ফেভারিট হয়েছে। তারা 2008 সালে দ্বিতীয় সবচেয়ে ব্যয়বহুল দল ছিল, যার মূল্য $111.6 মিলিয়ন।
এত বড় নাম এবং বড় বাজেট থাকা সত্ত্বেও তারা এখনও আইপিএল শিরোপা জিততে পারেনি। যদিও তাদের ফ্র্যাঞ্চাইজি সব মৌসুমেই ভালো পারফর্ম করেছে কারণ তারা ২০০৯, ২০১১ এবং ২০১৬ সালে তিনবার ফাইনালে উঠতে পেরেছিল। তারা ২০২১ সালে তৃতীয় স্থানে উঠেছিল এবং বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বে কেকেআরের কাছে হেরেছিল। . পরের মরসুমটি দলে বেশ কিছু পরিবর্তন আনবে কারণ কিং কোহলি অধিনায়কত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন এবং শুধুমাত্র একজন খেলোয়াড় হিসাবে উপলব্ধ হবেন, এইভাবে তাদের আইপিএল বাজির প্রতিকূলতাকে ঝাঁকুনি দেবেন।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

সানরাইজেস হায়দ্রাবাদ ২০১৩ সালে আর্থিক সমস্যার কারণে পূর্ববর্তী দল বরখাস্ত হওয়ার পরে অস্তিত্বে আসে। ফ্র্যাঞ্চাইজিটি ২০১৮ সালে রানার্স আপ হওয়া থেকে ২০২১ সালে শেষ স্থানে শেষ করার সময় বেশ উত্থান-পতন দেখেছে।
দলটিতে রশিদ খান, ডেভিড ওয়ার্নার, ডেল স্টাইন, কেন উইলিয়ামসন এবং শিখর ধাওয়ান সহ তারকা খেলোয়াড়দের একটি সম্পূর্ণ লাইন রয়েছে যদিও তারা এখনও তুলনামূলকভাবে কম আইপিএল বাজি ধরার সম্ভাবনা রয়েছে। ২০২১ টি ছিল দলের জন্য সবচেয়ে খারাপ মৌসুমগুলির একটি, কারণ তারা তাদের নয়টি খেলার মধ্যে ৮টি হেরেছে।

আইপিএল বেটিং অডস ২০২২: কে প্রিয়?

আইপিএল ২০২২-এর জন্য, প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি তাদের সেরা চারজন খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছিল। এই তথ্যের উপর ভিত্তি করে, আমরা শীর্ষ ৩টি হট ফেভারিট আইপিএল রাজা হিসাবে মুকুট পরার জন্য ভবিষ্যদ্বাণী করার চেষ্টা করি :

  • CSK – চেন্নাই সুপার কিংস ২০২১ সালে একটি শিরোপা জিতেছিল, চতুর্থবারের মতো, এইভাবে পরবর্তী বছরের জন্য তাদের আইপিএল বাজি ধরার সম্ভাবনা বেড়েছে। পরের মরসুমের জন্য অধিনায়ককে ধরে রাখা, এবং রবীন্দ্র জাদেজা, মঈন আলি, এবং রুতুরাজ গায়কওয়াড, দলটি শিরোপা রক্ষার জন্য প্রস্তুত।
  • মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স – পাঁচটি শিরোপা জয়ের রেকর্ড এবং একটি বিশাল বাজেটের জন্য দলটি সবসময়ই একটি প্রিয় ধন্যবাদ। তারা রোহিত শর্মা, জাসপ্রিত বুমরাহ, সূর্যকুমার যাদব এবং কাইরন পোলার্ড সহ তাদের সমস্ত তারকা শক্তি ধরে রেখেছে এবং পার্সে ₹480 মিলিয়ন। তাদের মূল খেলোয়াড়দের ক্যাম্পে ফিরে আসায়, দলটি পরবর্তী শিরোপা জিততে অন্যতম হট ফেভারিট।
  • RCB – বিরাট কোহলি, ম্যাক্সওয়েল এবং মুহাম্মদ সিরাজ সহ RCB তার ৩জন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে ধরে রেখেছে। দলটির পার্সে এখনও ₹480 মিলিয়ন রয়েছে এবং তারা একটি স্বপ্নের দল তৈরি করতে প্রস্তুত এবং অবশেষে তাদের প্রথম শিরোপা জিতেছে। এবি ডি ভিলিয়ার্স ব্যাটিং কোচ হিসেবে ফিরে আসবেন যা দলের পারফরম্যান্সকে আরও ভালোভাবে প্রভাবিত করবে।

আইপিএল ইভেন্টে কে ফেভারিট

দলসমূহঅডস
চেন্নাই সুপার কিংস৪.০০
দিল্লী ক্যাপিটালস৫.৫০
পাঞ্জাব কিংস৯.০০
কোলকাতা নাইট রাইডার্স৭.৫০
মুম্বাই ইন্ডিয়ানস৪.৫০
রাজস্থান রয়েলস৯.০০
রয়েল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালুরু৭.০০
সানরাইজার্স হাইদ্রাবাদ১১.০০
আহমেদাবাদ লায়নস১১.০০
লক্ষ্ণৌ লায়নস১১.০০

আইপিএল বেটিং টিম লোগো

আইপিএল ম্যাচ বেটিং

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ এখন পর্যন্ত সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ বার্ষিক ক্রিকেট ইভেন্ট। বেটররা সেরা আইপিএল প্রতিকূলতার সন্ধান করে, এবং 4rabet আইপিএল বেট লাইনের সাথে, তাদের আর তাকাতে হবে না। আমাদের বিশেষজ্ঞদের দল লাইভ এবং প্রাক-ম্যাচ আইপিএল বেটিং লাইনের জন্য সম্ভাব্য সর্বোত্তম প্রতিকূলতা প্রকাশ করে এবং বিশদ বিবরণ নিম্নরূপ:

আইপিএল বেটিং ম্যাচ

লাইভ আইপিএল বাজির রেট

লাইভ আইপিএল বেটিং, ইন-ম্যাচ বেটিং নামেও পরিচিত, যখন আপনি একটি ইভেন্ট শুরু হওয়ার পরে কিন্তু এটি শেষ হওয়ার আগে বাজি রাখেন৷ ম্যাচ চলাকালীন লাইভ বাজির অধীনে থাকা প্রতিকূলতাগুলি প্রায়শই পরিবর্তিত হয়। উদাহরণ স্বরূপ, প্রথম দিকের কয়েকটি উইকেট বা পাওয়ারপ্লেতে ৭০ রানের বেশি রান তাড়া করা দল, সামগ্রিক প্রতিকূলতা বা হারকে প্রভাবিত করতে পারে।

ঘন ঘন ওঠানামা সহগ আপনাকে একটি বাজি স্থাপন করার অনুমতি দেয় যখন আপনি আরও ভাল প্রতিকূলতা খুঁজে পান। যাইহোক, লাইভ আইপিএল বেটিং চ্যালেঞ্জিং হতে পারে যদি আপনার এই খেলা সম্পর্কে গভীর জ্ঞান না থাকে।

আইপিএল লাইভ বেটিং

আইপিএল প্রাক-ম্যাচে বাজি ধরা

আইপিএল প্রাক-ম্যাচ বাজি শুরু হওয়ার আগে একটি ম্যাচের উপর রাখা হয়। উদাহরণস্বরূপ, CSK, শনিবার MI খেলতে পারে, এবং আপনি বাজি ধরতে পারেন যে খেলা শুরু হওয়ার একদিন আগে CSK জিতবে।

এখানে সুবিধা হল যে প্রতিকূলতা ওঠানামা করার সম্ভাবনা কম কারণ ম্যাচের আগে যেকোনো দলের জয়ের সম্ভাবনাকে প্রভাবিত করবে এমন সম্ভাবনা কম। তবে ম্যাচের আগে সম্ভাবনা বদলে যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে যদি একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় আহত হয় বা শূন্যস্থান পূরণের জন্য একজন নতুন খেলোয়াড়কে আনা হয়, তবে এটি প্রতিকূলতাকে প্রভাবিত করবে।

আইপিএল প্রাক-ম্যাচ বেটিং

আইপিএল বিজয়ীর তালিকা

এই মেগা ইভেন্টটি শুরু হওয়ার 15 বছর হয়ে গেছে এবং ক্রিকেট খেলাকে চিরতরে বদলে দিয়েছে। ভক্ত ছাড়াও, আইপিএল বাজি বাজার বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এখানে 2008 সাল থেকে লিগের সমস্ত মৌসুমের জন্য সমস্ত আইপিএল বিজয়ীদের তালিকা রয়েছে:

2008 সাল থেকে আইপিএল বিজয়ী

সালবিজয়ী
২০২১চেন্নাই সুপার কিংস
২০২০মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
২০১৯মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
২০১৮চেন্নাই সুপার কিংস
২০১৭মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
২০১৬সান রাইজার্স হায়দ্রাবাদ
২০১৫মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
২০১৪কলকাতা নাইট রাইডার্স
২০১৩মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
০১২কলকাতা নাইট রাইডার্স
২০১১চেন্নাই সুপার কিংস
২০১০চেন্নাই সুপার কিংস
২০০৯ডেক্কান চার্জার্স
২০০৮রাজস্থান রয়েলস

শীর্ষ আইপিএল খেলোয়াড়

আইপিএলের সৌন্দর্য হল এটি সারা বিশ্বের শীর্ষ ক্রিকেট তারকাদের একত্রিত করে। ১৫বছর ধরে, আমরা শেন ওয়ার্ন থেকে শচীন টেন্ডুলকার থেকে রাহুল দ্রাবিড় এবং শোয়েব আখতার থেকে শুরু করে প্রায় সমস্ত ক্রিকেট কিংবদন্তিদের সাক্ষী হয়েছি। এখন প্যাটকামিন্স, বিরাটকোহলিএবংঋষভপন্তের মতো খেলোয়াড়দের নতুন বংশবৃদ্ধিও দেখার মতো একটি শো প্রকাশ করছে। নীচে, আমরা আপনাকে আপনার আইপিএল বেটিং প্রচেষ্টার জন্য বিবেচনা করার মতো খেলোয়াড়দের একটি তালিকা দিচ্ছি।

আইপিএল বেটিং শীর্ষ খেলোয়াড়

ক্রিকেট খেলোয়াড়: এমএস ধোনি

এমএস ধোনি

এমএস ধোনি সহজেই শচীন টেন্ডুলকারের পর ভারতের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট তারকা হতে পারেন। তিনি ভারতকে দুটি বিশ্বকাপ জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং পরে আইপিএলে তার দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা নিয়েছিলেন, যার ফলে সিএসকে চারবার চ্যাম্পিয়নশিপ শিরোপা জিতেছিল, সম্প্রতি ২০২১ সালে। তার স্কোর করার ক্ষমতা তার সেরা নাও হতে পারে, কিন্তু খেলায় তার প্রভাব অতুলনীয়। , এবং তিনি এখনও আইপিএলের সেরা খেলোয়াড়দের একজন, আইপিএল বাজি ধরার জন্য সেরা পছন্দ হিসাবে বিবেচিত।

ক্রিকেট খেলোয়াড়: বিরাট কোহলি

বিরাট কোহলি

তাকে প্রায়ই এই যুগের সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে গণ্য করা হয়। তার ত্রুটিহীন কৌশল এবং আক্রমণাত্মক মানসিকতার সাথে, তিনি ২০৭টি আইপিএল ম্যাচে পাঁচটি সেঞ্চুরি এবং 42টি অর্ধশতক করেছেন। তিনি সম্প্রতি ফর্মের বাইরে ছিলেন যার ফলে তার আইপিএল বাজির প্রতিকূলতা কমে গেছে, কিন্তু আপনি কখনই কিং কোহলির ক্লাস নিয়ে সন্দেহ করতে পারবেন না।

ক্রিকেট খেলোয়াড়: গ্লেন ম্যাক্সওয়েল

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল

অস্ট্রেলিয়ান বিগ হিটার অতুলনীয় ছয় মারার শক্তির সাথে দ্রুত রান স্কোর করে। ৩৩বছর বয়সী অসি ৯৭টি আইপিএল ম্যাচে স্কোর করেছেন এবং ১২ টা ফিফটির সাথে ২০১৮ রান করেছেন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল সবসময় আইপিএল বাজির জন্য উপযুক্ত পছন্দ, এমনকি তার খারাপ দিনেও।

ক্রিকেট খেলোয়াড়: কেএল রাহুল

কেএল রাহুল

মার্জিত ডান-হাতি ব্যাটসম্যান কেএল রাহুলকে এই যুগের সেরা ভারতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসাবে বিবেচনা করা হয়, সর্বদা অনুকূল আইপিএল বেটিং প্রতিকূলতা দেখায়। ২৯বছর বয়সী যুবকটি প্রযুক্তিগত এবং মানসিকভাবে শক্তিশালী বলে প্রমাণিত হয়েছে এবং বর্তমানে ভারতীয় টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক। তিনি ৯৪টি আইপিএল ম্যাচে খেলেছেন এবং ২৭ টিঅর্ধশতক এবং দুইশত সহ একটি বিস্ময়কর ৩২৭৩ রান করেছেন, যার মধ্যে ২০২১ সালে শুধুমাত্র ৬৯ বলে ১৩২অপরাজিত ইনিংস ছিল।

ক্রিকেট খেলোয়াড়: রশিদ খান

রশিদ খান

আফগান লেগ স্পিনার ২০১৫ সালে তার আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল, এবং মাত্র ছয় বছরের মধ্যে, তিনি এখন সবচেয়ে বেশি আয় করা আইপিএল খেলোয়াড়দের একজন। ল্যাংরেহরের তরুণ লেগি তার দ্রুত দুসরাসের জন্য পরিচিত এবং খেলার এই যুগে তাকে সেরা লেগ স্পিনার হিসাবে বিবেচনা করা হয়। তরুণ আফগান ছেলেটি কেবল দেখারই যোগ্য নয়, আইপিএল বাজির জন্যও তিনি একটি ভাল পছন্দ কারণ তিনি যে কোনও ম্যাচে সহজেই সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হতে পারেন।

আইপিএলের অফিসিয়াল সূত্র

আইপিএল পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম স্পোর্টস লিগ, এবং তাই প্রতিটি ম্যাচ এবং খেলোয়াড়ের বিষয়ে তথ্য পাওয়ার জন্য উত্সের অভাব নেই। যাইহোক, এই উৎসগুলি সহজেই বিভ্রান্তিকর হতে পারে বা টোপ ক্লিক করতে পারে এবং আপনাকে বিপদে ফেলতে পারে কারণ তথ্যের সঠিক অংশ একটি সফল আইপিএল বেটিং সেশনের জন্য একটি নির্ধারক ফ্যাক্টর হতে পারে। অফিসিয়াল সোর্স যেখান থেকে আপনি আইপিএল ক্রিকেট বিষয়ক সুনির্দিষ্ট তথ্য পেতে পারেন তা হল IPLT20.com । এছাড়াও, টুর্নামেন্ট এবং আইপিএল বেটিং মার্কেট আপডেট সম্পর্কে আরও তথ্যের জন্য আপনি সামাজিক নেটওয়ার্কগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

আইপিএল অফিসিয়াল সূত্র

টি২০ ফরম্যাট কি?

টি২০ হল একটি সীমিত ওভারের ক্রিকেট ফরম্যাট যার ইতিহাস ২০০৩ সাল থেকে। এই ফরম্যাটটি ECB-এর একটি বুদ্ধিমত্তা যা টি-টোয়েন্টি কাপ ২০০৩-এ সারে লায়ন্স এবং ওয়ারউইকশায়ার বিয়ার্সের মধ্যে প্রথম ম্যাচ খেলা হয়েছিল। ধারণার পিছনে মূল লক্ষ্য ছিল তরুণদের আকর্ষণ করা। একটি দ্রুত গতির ফর্ম্যাট সহ ক্রিকেট। একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দুটি দল থাকে, প্রতিটি দল ২০, ৬ বলে ওভার বোলিং করে। প্রতিটি বোলার ৪ওভারের মধ্যে সীমাবদ্ধ; তবে, ব্যাটাররা যতক্ষণ না আউট না হয় ততক্ষণ খেলতে পারে।

বিপরীতে, একটি ওডিআই ম্যাচ অনেক বেশি লম্বা হয়, প্রতিটি দল ৫০ ওভার বোলিং করে এবং ইনিংসের মধ্যে একটি দীর্ঘ বিরতি থাকে এবং যেকোনো ফলাফল আনতে পুরো দিন সময় লাগতে পারে। অন্যদিকে, টি-টোয়েন্টি মাত্র ৪ঘন্টার মধ্যে নিশ্চিত ফলাফল দিতে পারে, এটি আইপিএল বাজির জন্য বেশি জনপ্রিয় হওয়ার প্রধান কারণ।

শুরুতে, ক্রিকেট মহল নতুন ফর্ম্যাট নিয়ে বেশ সন্দিহান ছিল। তবুও, আইপিএল নতুন ধারণাটিকে একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বুস্ট দিয়েছে এবং এখন এটি টেস্ট এবং ওয়ানডে ফরম্যাটগুলিকে পিছনে ফেলে সবচেয়ে বেশি দেখা ক্রিকেটিং ফর্ম্যাট।

আইপিএলে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট কি?

আইপিএলে বাজি ধরার জন্য সাধারণ টিপস

4rabet আইপিএল বেটিং শুরু করার আগে, অপ্রয়োজনীয় হেঁচকি এড়াতে বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে কিছু টিপস পড়া মূল্যবান:

উপদেশবর্ণনা
আপনার প্রিয় সঙ্গে যান নাএকটি নির্দিষ্ট দলের প্রতি আপনার ভালবাসা আপনার রায়কে মেঘ করতে পারে। সর্বদা পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করুন এবং সংবেদনশীলভাবে আপনার বাজি তৈরি করুন।
আবহাওয়ার অবস্থার দিকে নজর রাখুনম্যাচের দিন আবহাওয়া কেমন থাকবে এবং খেলায় কেমন প্রভাব ফেলবে সে সম্পর্কে আপনার পরিষ্কার ধারণা থাকা উচিত।
পিচ রিপোর্ট পড়ুনপিচের অবস্থা পড়ে, আপনি অনুমান করতে পারেন কোন বোলারের সবচেয়ে বেশি উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি এবং কোন ব্যাটসম্যান স্পিন বা ফাস্ট বোলিং ভালো খেলতে পারে।
প্রাক-ম্যাচ বিশ্লেষণ দেখুননিরপেক্ষ প্রাক-ম্যাচ বিশ্লেষণের জন্য একটি টিভি চ্যানেল খুঁজুন, বিশেষজ্ঞদের কথা শুনুন এবং তারপর সেই বিশেষজ্ঞরা ম্যাচ সম্পর্কে যা বলেন তার উপর ভিত্তি করে আপনার সিদ্ধান্ত নিন।
দায়িত্বশীল বাজিআপনার সীমার মধ্যে ভাল থাকুন এবং আপনি প্রথমে যা চেয়েছিলেন তার চেয়ে বেশি বাজি ধরবেন না।

আইপিএল বেটিং সাধারণ টিপস

আইপিএল 4raBet বেটিং অ্যাপ

নতুন আইপিএল সিজনে 4raBet-এ বড় জয়ের উপর ফোকাস করে, আমরা ভারতীয় রুপিতে ঝামেলা-মুক্ত ক্রিয়াকলাপ পরিচালনা করার জন্য ব্যবহারকারীদের জন্য একটি সহজে পরিচালনাযোগ্য মোবাইল বেটিং অ্যাপ্লিকেশন এবং PC সফ্টওয়্যার তৈরি করেছি।

4raBet আইপিএল বেটিং অ্যাপের বৈশিষ্ট্য এবং প্রচুর ক্রিকেট বাজির বিকল্প রয়েছে। এটি Android, iOS এবং Windows OS এ কাজ করে। iOS মালিকরা অ্যাপল স্টোর থেকে এটি ইনস্টল করতে পারেন, যখন অ্যান্ড্রয়েড হোল্ডাররা ওয়েবপেজে ইনস্টলেশন প্যাকেজ পেতে পারেন।

অ্যাপে বাজি ধরা শুরু করতে:

  1. আপনার স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট ব্যবহার করে 4raBet-এর ওয়েবসাইট অ্যাক্সেস করুন।
  2. apk বা ipa ডাউনলোড করতে Android/iOS এর একটি চিত্র সহ ডানদিকে হলুদ স্কোয়ারে আলতো চাপুন।
  3. ইনস্টলেশন চূড়ান্ত করুন।

লাইভ বা প্রাক-ম্যাচ ইভেন্টে বাজি ধরতে, একটি খেলার ইভেন্ট বাছাই করতে শুধুমাত্র “বেট লাইভ” বোতামে ক্লিক করুন বা একটি ম্যাচ বেছে নিতে “লাইন” বোতামে আলতো চাপুন, যা এখনও শুরু হয়নি।

4raBet আইপিএল বেটিং অ্যাপ

আইপিএলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক

Vivo সম্প্রতি আইপিএল ২০২২-এর প্রাথমিক স্পনসর হিসাবে প্রত্যাবর্তন করেছে এবং ভারতীয় ব্যবসায়িক জায়ান্ট, টাটা গ্রুপ, শূন্যতা পূরণ করতে এসেছে। ভিভো, চীনা প্রযুক্তি সংস্থা, বিসিসিআইয়ের স্থগিতাদেশের মুখোমুখি হওয়ার পরে ২০২০ মৌসুমে ফিরে এসেছে এবং এখন আবার ভূমিকা থেকে সরে এসেছে। টাটা গ্রুপ এখন BCCI এর সাথে লিগের পরবর্তী দুই মরসুম স্পনসর করার জন্য একটি চুক্তি করেছে। টাটা হল একটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ব্যবসায়িক গোষ্ঠী যার নেতৃত্বে রয়েছেন রতন টাটা, যাকে ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বলেও মনে করা হয়।

আইপিএলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক

অফিসিয়াল পার্টনার

ইভেন্টের অফিসিয়াল স্পনসর হিসাবে উপস্থিত হওয়া টাটা গ্রুপ ছাড়াও, নিম্নলিখিত সংস্থাগুলিও পরবর্তী আইপিএল মরসুমের জন্য অফিসিয়াল ইভেন্ট অংশীদার হিসাবে উপস্থিত হবে:

  • স্টার স্পোর্টস – আইপিএলের সম্প্রচার সহযোগী।
  • ডিজনি হটস্টার – সমস্ত আইপিএল ম্যাচের জন্য ডিজিটাল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম।
  • সাফারি – প্রতিটি আইপিএল ম্যাচে ভালো ব্যাটিং করার জন্য একটি পুরস্কার দেয়।
  • Dream11 – একটি ভারতীয় ফ্যান্টাসি স্পোর্টস প্ল্যাটফর্ম যা ২০২০ আইপিএল শিরোনাম স্পনসরশিপ অর্জন করেছে।
  • ইউনাকাডেমি – একটি অফিসিয়াল অংশীদার যা সঠিক এবং শিক্ষার সাথে সম্পর্কিত, আমাদের আইপিএল শর্ট ফিল্ম এবং হাইলাইটগুলি রোল করে৷
  • ক্রেড – কৃতিত্বের যোগ্য ব্যক্তিদের একটি সম্প্রদায় যা এর স্টোরে বিশেষ আইপিএল অফারগুলিকে বৈশিষ্ট্যযুক্ত করে৷
  • আপস্টক্স – একটি ডিজিটাল ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম যা তরুণ, আর্থিকভাবে স্বাধীন দর্শকদের তাদের পোর্টফোলিও পরিচালনা করার বিকল্পগুলি খুঁজতে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করে।
  • PayTM – অর্থপ্রদান পরিষেবা যা নিরাপদ এবং নিরাপদ অনলাইন অর্থপ্রদানের অনুমতি দেয়।
  • Ceat – অফিসিয়াল কৌশলগত টাইমআউট পার্টনার।

আইপিএল অফিসিয়াল পার্টনার

আইপিএল সম্পর্কে শীর্ষ ১০ আকর্ষণীয় তথ্য

আইপিএল বেটিং উত্সাহীদের জন্য এখানে ১০টি আকর্ষণীয় তথ্য রয়েছে:

  1. এনরিক নর্জ ২০২০ সালে ১৫৬.২২ কিমি/ঘন্টা গতিতে আইপিএলের দ্রুততম বলটি করেছিলেন।
  2. আইপিএলের ইতিহাসে কখনও ড্র ম্যাচ হয়নি, কারণ সমস্ত টাই ম্যাচ সুপার ওভারের মাধ্যমে সাজানো হয়েছিল।
  3. আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সুপার ওভারে জয় পেয়েছে পাঞ্জাব কিংস, যা ৩টি।
  4. দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিস মরিস লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে মূল্যবান ক্রিকেটার কারণ তিনি ২০২০ সালে ₹162.5 মিলিয়নে অধিগ্রহণ করেছিলেন।
  5. পুনে ওয়ারিয়র্স ইন্ডিয়ার বিপক্ষে আরসিবি ২৬৩ রান করেছে, যা ইভেন্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ স্কোর।
  6. একক আইপিএল ম্যাচে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৭৩ রানের রেকর্ড ক্রিস গেইলের।
  7. দিল্লি ক্যাপিটালস ইভেন্টের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি হারে (৯৭) দল।
  8. মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ২০০৮ সালের পর এই ইভেন্টের সবচেয়ে সফল দল, ১২০টি জয়।
  9. দীর্ঘতম আইপিএলের রেকর্ড অ্যালবি মরকেলের দখলে, ছয়টি (১২৪ মিটার)।
  10. রাজনৈতিক কারণে আইপিএলে নিষিদ্ধ পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা।

আইপিএল বেটিং উত্সাহীদের জন্য শীর্ষ 10টি তথ্য৷

সারসংক্ষেপ

আইপিএল বিশ্বের বৃহত্তম, সবচেয়ে বিনোদনমূলক ক্রিকেট ইভেন্ট এবং হবে কারণ অন্য কোনো ক্রিকেট লিগ এই মেগা ইভেন্টের দর্শকদের কাছাকাছি কোথাও আসতে পারে না। এছাড়াও, আইপিএল বেটিং খেলোয়াড়দের জন্য সবচেয়ে মূল্যবান বাজার হতে পারে যদি আপনি সংবেদনশীলভাবে আপনার পদক্ষেপ নেন এবং 4rabet-এর মতো নিরাপদ বুকি পার্টনার বেছে নেন। আমাদের সাথে সাইন আপ করুন যেহেতু আমরা অনেক বড় এবং ভালো আইপিএল মরসুমের জন্য প্রস্তুত হয়েছি, এবং আপনার বাজি তৈরি করার জন্য সেরা সম্ভাব্য আইপিএল প্রতিকূলতা এবং অতুলনীয় পরিবেশ দিয়ে আপনাকে পরিবেশন করতে দিন।

আইপিএল টুর্নামেন্ট সম্পর্কে 4rabet সারাংশ

জিজ্ঞাসা

আইপিএল বেটিং কি বাংলাদেশে বৈধ?

অনলাইন বেটিং নিষিদ্ধ করার জন্য রাজ্য স্তরে ভারতের কোনো সরাসরি আইন নেই। সুতরাং, অনলাইন আইপিএল বেটিং অনুশীলন করার সময় বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের আইনি সমস্যা হবে না।

কোন আইপিএল দল আইপিএল ২০২২ জিততে ফেভারিট বাজি ধরছে?

সিএসকে এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স জয়ের প্রিয় দল কারণ তারা তাদের মূল খেলোয়াড়দের ধরে রেখেছে।

আমি কোথায় আইপিএল ম্যাচ বেটিং অনলাইন (লাইভ) করতে পারি?

4rabet আপনাকে আইপিএল-এ লাইভ/অনলাইন বাজি রাখার জন্য সেরা সুযোগ প্রদান করে।

আইপিএল ২০২২ শুরুর তারিখ কখন?

পরিস্থিতি অনুকূলে থাকায় ২রা এপ্রিল থেকে শুরু হতে চলেছে আইপিএল।

আইপিএলের ফাইনাল তারিখ কবে?

সবকিছু পরিকল্পনা অনুযায়ী চললে, ২০২২ সালের 3রা জুন আইপিএল ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।

আমি আজকের আইপিএল ম্যাচ বেটিং রেট কোথায় পেতে পারি?

আপনি 4rabet-এর আইপিএল পৃষ্ঠায় আপডেট হওয়া প্রতিকূলতা এবং হারগুলি খুঁজে পেতে পারেন।